বৃহস্পতিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২১, ১০:০৮ অপরাহ্ন

দাগনভূঞায় পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহকের ৩০ ইউনিটের বিল ৩ লাখ টাকা!

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২১ আগস্ট, ২০২০

ফেনীর দাগনভূঞায় পল্লী বিদ্যুৎ’র এক গ্রাহকের ৩০ ইউনিটের বিল করা হয়েছে ৩ লাখ ৫ হাজার ৬৫০ টাকা। উপজেলার মাতুভূঞা ইউনিয়নের উত্তর আলীপুর গ্রামের আমু কাজী ভূঞা বাড়ির অটোরিক্সা চালক আবদুর রহিমের জুলাই মাসের বিল জরিমানাসহ এসেছে ৩ লাখ ৫ হাজার ৬৫০ টাকা।

বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ‘ভুতুরে বিলের’ কপিটি ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভ প্রকাশ করে স্থানীয়রা।

ফেনী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির দাগনভূঞা জোনাল অফিসের গ্রাহক সিএনজি অটোরিক্সা চালক আবদুর রহিম জানান, তার বাড়িতে কয়েক দিন আগে পল্লী বিদ্যুৎ অফিস থেকে জুলাই মাসের বিল দিয়ে যায় এক লাইন ম্যান। তার এসএমএস বিল নং-১৩৫-২০০৭-৮০৩২১, এসএমএস একাউন্ট ১০১৬০৫-২০০৭-৮০৩২১, হিসাব নং-০৩-৮১৫-১৯৬৬।

বিল পর্যবেক্ষন করে দেখা যায়, জুলাই-২০২০ মাসের বিল প্রস্তুত হয়েছে জুলায়ের ২০ তারিখে। প্রেরিত বিলে পরিশোধের শেষ তারিখ ছিলো ৮ আগস্ট। বিলম্ব মাশুলসহ পরিশোধের শেষ তারিখ ১৯ আগস্ট।

বিলে বর্তমান ইউনিট দেখানো হয়েছে ২১৫ (১৩/০৭/২০২০)। পূর্ববর্তী ইউনিট ছিলো ১৮৫ (১৩/০৬/২০২০)। ইউনিটের পার্থক্য হিসেবে জুলাই মাসে ব্যবহৃত বিদ্যুৎ ইউনিট ৩০।

বিলে প্রতি ইউনিট ৩.৮০ টাকা (১ থেকে ৫০ ইউনিট) হারে ব্যবহৃত বিদ্যুৎ ইউনিট ১১৪ টাকা দেখানো হয়েছে। বিলে ডিমান্ড চার্জ লেখা হয়েছে ২ লাখ ৭৭ হাজার ৭৪০ টাকা। সেই হিসেবে নীট বিল ধরা হয়েছে ২ লাখ ৭৭ হাজার ৮৫৪ টাকা। ভ্যাট ধরা হয়েছে ১৩ হাজার ৮৯৩ টাকা। মিটার ভাড়া ১০ টাকা ধরা হয়েছে। সব মিলিয়ে মোট বিল ধরা হয়েছে ২ লাখ ৯১ হাজার ৭৫৭ টাকা।

মোট বিলের সাথে বিলম্ব মাশুল ধরা হয়েছে (নীট বিলের ৫%) ১৩ হাজার ৮৯৩ টাকা। বিলম্ব মাশুল সহ সর্বমোট বিল এসেছে ৩ লাখ ৫ হাজার ৬৫০ টাকা।

গ্রাহক আবদুর রহিমের বিলে প্রস্তুতকারকের নাম লিখা রয়েছে শিরীন। বিলে নোটিশ করা হয়েছে ১৯ আগস্টের মধ্যে বিল পরিশোধ না হলে কোন রকম পূর্ব নোটিশ ছাড়াই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে।

হতদরিদ্র অটোরিক্সা চালক আবদুর রহিম জানান, মাত্র ৩০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার করে ৩ লাখ ৫ হাজার ৬৫০ টাকা বিল আমি কিভাবে দেব? আমার বিলটি সংশোধ করে ৩০ ইউনিটের মুল বিল দিতে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

দাগনভূঞা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম জানান, ‘এটি টাইপিং মিসটেক। শিল্প ইউনিটের ডিমান্ড চার্জ ভুলে আবাসিক বিলে যুক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বিভ্রান্ত হওয়ার কোন কারণ নেই। বৃহস্পতিবার সকালে পূর্বের বিলটি দ্রুত সংশোধন করে গ্রাহককে বিলম্ব ফিসহ ২০২ টাকার নতুন বিল দেয়া হয়েছে।’

মতামত লিখুন :

এ জাতীয় আরো খবর..

আপনি কি খুঁজছেন?

পুরোনো মাসের সংবাদ

© All rights reserved © 2019 Digital Noakhali
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardnoakha4